মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভাষা ও সংস্কৃতি

 

বাংলাদেশের অন্যান্য এলাকার মত ঠাকুরগাঁও উপজেলাধীন ১৮ নং শুখান পুখরী ইউনিয়নেরও আঞ্চলিক ভাষার ঐতিহ্য রয়েছে। এ অঞ্চলে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত মানুষজন উক্ত ইউনিয়নে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করে। তাদের আঞ্চলিক ভাষা এলাকার মানুষের ভাব বিনিময়ের অকৃত্রিম মাধ্যম। আঞ্চলিক বাংলা চলিত ভাষার পাশাপাশি শিক্ষিতঅর্ধশিক্ষিতঅশিক্ষিত সমাজে শুদ্ধ বাংলা চর্চাও রয়েছে।আঞ্চলিক ভাষায় রয়েছে সাধু ভাষার ক্রিয়াপদের একত্র উচ্চারণ কৌশল,হিন্দি,অসমিয়,নেপালী শব্দের সরাসরি বা কিছুটা বিকৃত উচ্চারণ।ফলে এ আঞ্চলিক ভাষা দেশের অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষা থেকে ভিন্নতা পেয়েছে।এ অঞ্চলে রয়েছে বিভিন্ন আদিবাসীর বসবাস। এ অঞ্চলে আদিবাসি সাঁওতালরা বসবাস করে। তারা সাওতালি ভাষায় কথা বলে। এছাড়াও এখানে কিছু সংখ্যক ওঁড়াও,মুন্ডা মুসোহর আদিবাসী রয়েছে। তারা তাদের নিজ নিজ ভাষায় কথা বলে আবহমানকাল ধরে মুসলিম,হিন্দু,বৌদ্ধ,খৃস্টান,আদিবাসী অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের সহাবস্থানে অঞ্চলে অর্পূব এক সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সংস্কৃতি বিরাজ করছে।তবে অন্যান্য অঞ্চলের মত অঞ্চলের মানুষের মধ্যেও আচার-ব্যবহার,অভ্যাস,রীতিনীতি,চলাফেরা,ধ্যান-ধারনায় ভিন্নতা লক্ষ্য করা যায়

 

ৃুতদকিৃুতদ যডপহযড়পগড় যগডহপযডগ  ্‌ও্রেও ররররররররর নননননননননন ুিুুুতকৃুতি দকৃুািতদ যহগডপড়  ‍ুৃতিকৃুতদা তকৃৃিকতুদি দৃুকতিদৃদক াদৃুকিাকৃুদ দককৃুদকিা দককদৃু ককদৃু িদকদৃু দককৃ যড়গহযড়হডপ কৃুািকদ ্রৗষৈ,মস্রও, েুকৃদিকদৃ ‍ৃুকদিক যডপহহযগড় দৃুকিাত ্রওমে, কদকৃুদতাি কৃুদিড়যড়যড়য ‍ুতিৃককুদত িকদুকি যডহড়যহডড়প ‍ুকিৃাকদ ্র,্রেশৈৗ< ‍ুকদািকদৃুদ দকুদািক কদুাি কদৃু ি ‍ৃুািকৃুকাদ দুাকৃুদাি দকৃু দাদৃুকড়িযহযড় ‍ৃুকািদদ ্রৌশ্রৈস েুৃদিতকু যযযযয পপপপ  টটটটট  চচচ  জজ হ হ    হগগ  ্র্র  ওওও  ি ি  ড়ড়ড়ড়ড়ড় ডডডডড ৃিৃৃৃৃৃৃ  ঙঙঙঙঙ কককককক 


Share with :

Facebook Twitter